লক্ষ্মীপুরে ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে গাছ লুটের অভিযোগ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার রাধাপুর গ্রামে মুর্শিদা বেগমের অর্ধশতাধিক ফলজ ও বনজ গাছ ব্যবসায়ী রাজন ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে লুটের অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত রেজাউল করিম রাজন সদর উপজেলার জকসিন বাজারের কাপড় ব্যবসায়ী এবং রাধাপুর গ্রামের ইউসুফ ভূইয়া বাড়ীর নাজমুল করিমের ছেলে। ক্ষতিগ্রস্থ মুর্শিদা বেগমের ছেলে খালেদ হোসেন লিটন জানান, বাগান, পুকুর ও বসতবাড়ীসহ ১৮ কাঠা সম্পত্তি ১৯৬৫ সালে তার নানা ফজলুল করিম তার তিন মেয়ে নূরজাহান, রজবের নেসা ও রওশন তারাকে বন্টন করে দেন। পরবর্তীতে নূরজাহানের মেয়ে মুর্শিদা বেগম ও তার স্বামী জালাল আহম্মেদ অপর দুই ওয়ারিশ থেকে তাদের বন্টনের সম্পত্তি ক্রয় করেন। ক্রয়কৃত সম্পত্তিতে তিনি ফলজ ও বনজ গাছ ছাড়াও বসতবাড়ী নির্মাণ করেন। কিন্তু গত কিছুদিন যাবত কাপড় ব্যবসায়ী রাজন, তার ভাই আলী করিম মোহন ও তাদের পিতা নাজমুল করিম জোর করে তার ক্রয়কৃত সম্পত্তি জবর দখল করার চেষ্টা করে। তারা যাতে বসতঘর ব্যবহার করতে না পাওে সেজন্য ঘরের পাশে গোয়াল ঘর নির্মাণ করে। শুধু তাই নয় সম্প্রতি নাজমুল করিম ও তার ছেলেরা অর্ধশতাধিক ফলজ ও বনজ গাছ লুট করে নেয়। তবে অভিযুক্ত রেজাউল করিম রাজন জানান, জালাল আহম্মেদ ভূঁইয়া বিগত সময়ে রওশন তারার নিকট থেকে জমি ক্রয় করেছেন। কিন্তু রওশন তারা বিষয়টি আমাদের না জানিয়ে আমাদের কাছেও জমিটি পরে বিক্রি করে। আমরা বিক্রেতাকে জমি আমাদেরকে বুঝিয়ে দেয়ার জন্য বললে তার নির্দেশেই গাছ কর্তন করা হয়েছে। তবে বিক্রেতা আমাদের সাথে জালিয়াতি করেছে। সদর থানার ওসি মোঃ লোকমান হোসেন জানান, গাছ লুটের অভিযোগটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কাগজপত্র পর্যালোচনা করে পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Facebooktwittergoogle_pluspinterestlinkedin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *