মতবিনিময় সভায় জিয়াউদ্দিন বাবলু এমপি স্বাধীনতার সুফল বাংলার ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে জাতীয় পার্টির বিকল্প নেই

z

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী, জননেতা জিয়াউদ্দিন

আহমেদ বাবলু এমপি বলেছেন বঙ্গবন্ধু বাংলার মানুষকে পাকিস্তানি হায়েনদের কবল থেকে

মুক্ত করেছিলেন সুদীর্ঘ সংগ্রাম ও ৭১‘র মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে। কিন্তু বাংলার

মানুষকে সেই স্বাধীনতার সুফল অর্জনে সহায়তা করেছিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান

সাবেক সফল রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। সাভার জাতীয় স্মৃিতসৌধ, রায়ের

বাজার বধ্যভূমি, মুজিবনগর কমপ্লেক্স ও সারাদেশের অবহেলিত মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠিত

করতে মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট কার্যালয় স্থাপনের জন্য নগদ ১ কোটি টাকা, সারাদেশে

কার্যালয় স্থাপনের জন্য জমি বরাদ্দ করেছিলেন পল্লীবন্ধু এরশাদ। মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বকালের

সর্বশ্রেষ্ঠ সন্তান উপাধি দিয়েছিলেন পল্লীবন্ধু এরশাদ। পরবর্তীতে মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে

জাতীয় পার্টি সরকার নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিলেন বলেই বাংলার মুক্তিসেনারা

তাদের যথাযোগ্য মর্যাদা ও সম্মান পেয়েছিলেন। জাতীয় পার্টির শাসনামলে মুক্তিযুদ্ধকে

অবমাননা করা হয়নি। স্মৃতিসৌধে ফুল দিতে গিয়ে জুতা পায়ে উঠে অমর্যাদা করে

নাই জাতীয় পার্টির কোন নেতাকর্মী। অথচ পরবর্তীতে যে সরকারগুলো স্বাধীনতা ও

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের কথা বলে ক্ষমতায় এসেছে তাদের সময়ে শহীদ মিনার ভেঙ্গে

ফেলতে দেখেছে বাংলার মানুষ। তিনি হানাহানি প্রতিহিংসার রাজনীতি থেকে রক্ষা করে

বাংলার মানুষের ঘরে ঘরে স্বাধীনতার প্রকৃত সুফল পৌছে দিতে জাতীয় পার্টির পুনরায়

ক্ষমতায় যাওয়ার বিকল্প নেই উল্লেখ করে দলের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে সংগঠন শক্তিশালী

করার উদাত্ত আহ্বান জানান। তিনি আজ ২৪ নভেম্বর সকাল ১১টায় চট্টগ্রাম বিজয় উৎসব

পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা

বলেন। চট্টগ্রাম সার্কিট হাউস মিলনায়তনে বিজয় উৎসব পরিষদের মহাসচিব শ্রী তপন

চক্রবর্ত্তীর সভাপতিত্বে ও প্রধান সমন্বয়কারী দিদার আশরাফীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায়

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক

আলহাজ্ব এয়াকুব হোসেন, সহ সভাপতি কামরুজ্জামান পল্টু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক

নিজাম উদ্দিন জ্যাকি, সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, নগর জাপা নেতা

শামসুল আলম বি কম, নগর স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সদস্য সচিব এম আজগর আলী, নগর

যুব সংহতির সভাপতি এস এম সাইফুল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক নুরুল বশর সুজন, নগর

সাংস্কৃতিক পার্টির আহ্বায়ক ফারুকুল ইসলাম, সদস্য সচিব শাহাদাত হোসেন

স্বপন, যুগ্ম আহ্বায়ক হাজী আলী আকবর, নগর ছাত্র সমাজের সাবেক সদস্য সচিব

রাশেদুল হক খোকন, যুগ্ম আহ্বায়ক নূর আলম শেখ, সেলিম রেজা, সাকিবুল হাসান

প্রমুখ।

Facebooktwittergoogle_pluspinterestlinkedin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *