ভোটারদের দাবী এটি তামাসার নির্বাচন রাউজানে বিএনপির ১০ চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়ন অবৈধ হওয়ায় আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা বিনা র্নিবাচনে জয়ের পথে

index

রাউজান প্রতিনিধি :-
চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলায় আগামী ৭ই মে ইউপি নির্বাচনে ১৪ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীদের মনোনয়ন যাচাই বাছাই ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। এতে বিএন পির ১০ চেয়ারম্যান,র্প্রাথী মনোনয়নপত্র বাতিল হয়, আওয়ামী লীগের সব প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষিত হওয়ায় আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা বিনা নির্বাচনে জয়ের পথে রয়েছে। ফলে এই নির্বাচনকে ভোট বিহীন তামাসার নির্বাচন হিসেবে উল্লেখ করেছেন সাধারন ভোটাররা।এছাড়া পুরুষ মেম্বার পদে ২১ জন,সহ মহিলা পদে ১ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে যায়। উপজেলা নির্বাচন অফিসে দাখিলকৃত মনোনয়ন পত্রে নানা অসংগতি পাওয়ার কারণে চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র বাতিল হয়েছে বলে স্ব স্ব ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং অফিসারগণ জানিয়েছেন। গত সোমবার ৭ ইউনিয়নে (কদলপুর, পূর্ব গুজরা, নোয়াপাড়া, বাগোয়ান, হলদিয়া, নোয়াজিষপুর, বিনাজুরী) মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাই করা হয়। এর আগের দিন অপর ৭ ইউনিয়নের (ডাবুয়া, চিকদাইর, গহিরা, রাউজান, পশ্চিম গুজরা, উরকিরচর, পাহাড়তলী)। এদিকে মনোনয়নপত্র বাছায়ে যেসব চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা চত্বরে আসেন, তাদের মধ্যে সাধারন মানুষের বেশি দৃষ্টি ছিল, কদলপুর ইউপির নৌকা প্রতীকের প্রার্থী, বর্তমান চেয়ারম্যান মোজাহেদ উদ্দিন চৌধুরী লিংকনের দিকে। তিনি সকালে মনোনয়ন যাচাই বাছাইয়ের শুনানীতে হাজির হন মাইক্রো (হাইস) গাড়ীতে করে কিছু মেট্রোপলিটনের পুলিশ নিয়ে। বিষয়টি নিয়ে কৌতুহলের সৃষ্ঠি উপস্থিত সাধারন মানুষের মাঝে, যদিও নিরাপত্তার কারনে তিনি পুলিশ নিয়ে আসেন বলে জানা গেছে। এখানে যাচাই বাছাইয়ের শুনানীতে চেয়ারম্যান পদে যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে তারা হলেন হলদিয়ায় মহিউদ্দিন জীবন (ধানের শীষ), ডাবুয়ায় মোহাম্মদ মামুন (ধানের শীষ), রাউজান ইউনিয়নে ফয়জুল ইসলাম চৌধুরী টিপু (ধানের শীষ), কদলপুরে মো. হাশেম (ধানের শীষ), পাহাড়তলীতে মোজাহেরুল ইসলাম (ধানের শীষ), পূর্বগুজরায় নুরুল ইসলাম বাবুল (ধানের শীষ), পশ্চিম গুজরায় হারুন অর রশীদ (ধানের শীষ), বাগোয়ানে নেজাম উদ্দিন (ধানের শীষ), উরকিরচরে হাজী আবদুল মান্নান (ধানের শীষ), নোয়াপাড়ায় হাজী মোহাম্মদ জসিম উদ্দীন (ধানের শীষ)। চিকদাইরে বিএনপি প্রার্থী ফরিদ মিয়া, স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ার হোসেন, বিনাজুরীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু মোহাম্মদ খালেদ নিজ নিজ মনোনয়পত্র প্রত্যাহারের জন্যে আবেদন করেছেন। গহিরা, বিনাজুরী, নোয়াজিষপুর ইউনিয়ন বিএনপির প্রার্থী কয়েকটি ইউনিয়নে কয়েকজন স্বতন্ত্র প্রার্থীও মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিতে পারেন বলে বিশেষ একটি সূত্রে জানা গেছে। আর তা হলে কদলপুর ইউপি ছাড়া বাকী ১৩টিতেই আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা বিজয়ী হতে যাচ্ছেন। এদিকে বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে খবর নিয়ে জানা যায়, উপজেলার ইউনিয়ন ওয়ার্ডে মহিলা, পুরুষ মেম্বার পদেও আওয়ামী লীগ একক প্রার্থী নির্ধারণ করায় অনেক প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিচ্ছেন। একারনে বেশিরভাগ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান মেম্বার পদে কোন নির্বাচন না হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।স্থানিয় এই নির্বাচন নিযে সাধারন ভোটার ও নির্বাচন কমিশন কর্তৃক নিবন্ধিত বিভিন্ন দলের নেতারা বলেন স্থানিয় নির্বাচন দলীয় করণে নির্বাচনী আমেজ নষ্ট হয়ে যাওয়ায় রাজনৈতিক দল গুলো নির্বাচনের প্রতি আগ্রহী হচ্ছেনা। এই নিয়ে বাংলাদেশ ইসলামীক ফ্রণ্ট দক্ষিন রাউজান উপজেলা শাখার সভাপতি স.ম.জাফর উল্লাহ বলেন,গত নির্বাচন পর্যালোচনায় রাজনৈতিক নিবন্ধিত এসব দল মনে করেন সকল দলের অংশগ্রহনে নির্বাচনী পেইন লেবেব নিরপেক্ষ নির্বাচনের অনুকুল নয় তাই নির্বাচন এই রুপ হওয়া সাভাবিক।

Facebooktwittergoogle_pluspinterestlinkedin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *