ইউপি নির্বাচনে ফটিকছড়ি: ভোট ছাড়াই বিজয়ের পথে চার প্রার্থী

12049344_598744400289089_1346633306185835325_n
আসন্ন ২৩ এপ্রিল তৃতীয় দফায় ফটিকছড়ির ১৫ ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে-৬৭, সংরক্ষিত ওয়ার্ড সদস্য-১০৬, সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদে-৪৭০ জন প্রার্থীর উৎসব মূখর পরিবেশে মনোনয়নপত্র দাখিল শেষ হয়েছে। আজ বুধবার ছিল যাচাই বাছাইয়ের শেষ দিন। যেখানে চেয়ারম্যান পদে সুন্দরপুরের আরশাদ হোসেন সেলিম বাদ পড়েছেন। অপরদিকে লেলাং এ সরোয়ার উদ্দিন সাধারণ ইউপি ওয়ার্ড সদস্য হিসেবে বিনা প্রতিদ্বন্ধীতায় নির্বাচিত হওয়ার পথে। একইভাবে সমিতিরহাট ইউনিয়নেও সংরক্ষিত তিন ওয়ার্ড সদস্য প্রতিদ্বন্ধী না থাকায় নিশ্চিত নির্বাচিত হতে চলেছেন।
মনোনয়ন জমাকৃতদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আ.লীগের নির্ধারিত নৌকা প্রতীকের একক প্রার্থী ছাড়াও রয়েছে তৃণমূলের ভোটে পরাজিত আ.লীগের একাধিক প্রার্থী। এসব বিদ্রোহী প্রার্থী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন ফরম দাখিল করেছেন।
১৫ ইউনিয়নে আ.লীগের নৌকার প্রার্থীরা হলেন- বাগানবাজারে রুস্তম আলী, দাঁতমারায় জানে আলম, নারায়নহাটে হারুনুর রশিদ, ভূজপুরে মো.ইব্রাহীম, হারুয়ালছড়িতে জুলফিকার আলী ভুট্টু, পাইন্দং এ শাহালম সিকদার, কাঞ্চন নগরে শাহালম সিকদার, সন্দুরপুরে শাহনেওয়াজ, লেলাংয়ে সরোয়ার উদ্দিন চৌধুরী শাহীন, রোসাংগিরীতে শোয়াইব আল সালেহীন, বখতপুরে সোলাইমান, ধর্মপুর মো. আব্দুল কাইয়ুম, জাফতনগরে আব্দুল হালিম, সমিতিরহাটে হারুনুর রুশিদ ইমন, আব্দুল্লাহপুরে হোসেন আলী।
এখানে রোসাংগিরীতে শফিউল আলম, সুন্দরপুরে রেজাউল করিম , বখতপুরে ফারুকুল আজম, সমিতিরহাট মো.হাছান চৌধুরী, জাফতনগরে- নাজিম উদ্দিন নাজু বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন । তবে, শেষতক প্রত্যাহারের শেষদিন ৬ এপ্রিল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে কারা কারা বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে লড়বেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা আ.লীগের সভাপতি আফতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন,‘ যারা দলের সিদ্ধান্তের বিপরীতে যাবে; তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে । তবে, তাদেরকে মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষদিন পর্যন্ত সুযোগ দেওয়া হবে ।’
অপরদিকে, একক প্রার্থী দিয়ে নো- টেনশনে বিএনপি। ১৫টি ইউনিয়নে একটি ছাড়া সবক‘টিতে প্রার্থী দিয়েছে দলটি। একটি ইউনিয়নে হুমকির মুখে মনোনয়ন জমা দিতে পারেননি বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির এক প্রার্থী। ১৪ টি ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থীরা হলেন- বাগান বাজারে খোরশদুল আলম, দাঁতমারায় ইদ্রিছ মিয়া , নারায়নহাটে খোরশেদুল আলম বাবুল , ভূজপুরে নাজিম উদ্দিন , হারুয়ালছড়িতে এম. এ কাশেম, পাইন্দং এ সরোয়ার হোসেন স্বপন, সুন্দরপুরে শহিদুল আজম, কাঞ্চন নগরে বদিউল আলম, লেলাংয়ে- হোসাইন আহমদ মিয়াজী, রোসাংগিরীতে মো. সাইফুদ্দিন , বখতপুরে জাহাঙ্গীর আলম, ধর্মপুর মো. ইউছুপ, সমিতিরহাটে জাহেদ উল্লাহ কুরাইশী, আব্দুল্লাহপুরে আবুল কাশেম। জাতীয় পার্টি ভূজপুর ইউনিয়নে আবুল কালাম আজাদকে ও সমিতিরহাটে শফিউল আজম চৌধুরীকে প্রার্থী হিসেবে দলের প্রতীক দিয়েছে । এছাড়া বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন ফুলের মালা প্রতীকে ভূজপুর ইউনিয়নে তাফস চন্দ্রকে প্রার্থী দিয়েছে।
উল্লেখ্য, আগামী ৬ এপ্রিল মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন। ৭ এপ্রিল প্রতীক বরাদ্দ। আগামী ২৩ ্এপ্রিল দেশের তৃতীয় দফায় ফটিকছড়িতে ১৫ টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহন হবে।
যেখানে ১ শত ৩৭ টি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে এসব ভোট গ্রহন। যেখানে মোট ভোটার ২ লক্ষ ৬৫ হাজার ১১৫ জন।
ছবি : মনোনয়ন ফরম দাখিল করছেন-(বাম থেকে) ধর্মপুরে আব্দুল কাইয়ুম(আ‘লীগ), সমিতিরহাটে হারুনুর রশিদ ইমন (আ‘লীগ), সমিতিরহাটে মো.হাছান চৌধুরী (স্বতন্ত্র), রোসাংগিরীতে মো.সাইফুদ্দিন(বিএনপি)

Facebooktwittergoogle_pluspinterestlinkedin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *