হোয়াইট হাউসে দৌড়ে ওবামাও যোগ দিতে পারবেন কি না?

071e16745c2f8c96b8218aeb06681286-Micel

হোয়াইট হাউসের সাউথ লনে শিশুর মেলা। শিশুরা হাসছে, খেলছে, দৌড়াচ্ছে। সঙ্গে দৌড়াচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা। বারান্দায় হাসিমুখে দাঁড়িয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

গত সোমবার ইস্টার মানডে উপলক্ষে হোয়াইট হাউসে ছিল হাজারো শিশুর নিমন্ত্রণ। রংবেরঙের পোশাকে শিশুরা জড়ো হয় সেখানে। ঝলমলে রোদে মিশেলের সঙ্গে মজার মজার খেলায় মেতে ওঠে তারা। আনন্দ থেকে বাদ যায়নি ওবামা পরিবারের দুই পোষা কুকুর বো ও সানিও। শিশুদের জন্য ছিল ঐতিহ্যবাহী মস্ত বড় ইস্টার এগ রোল। ছিল ইস্টার বানি বা শিশু খরগোশের পুতুল।

ffe2cca4b95344a6d249599e25e9d5ea-05

ইস্টার মানডে উপলক্ষে ইস্টার এগ রোলের এই প্রচলন বহু পুরোনো। ১৮৭৮ খ্রিষ্টাব্দ থেকে এটি চলে আসছে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অনুষ্ঠানে অনেক বদল এসেছে। যুক্ত হয়েছে গল্প বলা, গানবাজনা, শরীরচর্চার পরামর্শ, বাস্কেটবল, টেনিস। রয়েছে রান্নার পরামর্শ বা যোগব্যায়াম। এ বছর ফার্স্ট লেডি এই অনুষ্ঠানে আরও একটি নতুনত্ব এনেছেন। তা হলো মজার দৌড় প্রতিযোগিতা। মার্কিন শিশুদের স্থূলতা কমানোও এই দৌড়ের লক্ষ্য।

দৌড়ের আগে মিশেল রীতিমতো উত্তেজিত। বলেন, ‘হোয়াইট হাউসের চারপাশে একদল শিশুর সঙ্গে দৌড় শুরু করছি।’ বারান্দায় দাঁড়ানো ওবামাও কম যান না। মজা করে জানতে চান, দৌড়ে তিনিও যোগ দিতে পারবেন কি না?

৩৫ হাজারের বেশি মানুষ ওই দিন হোয়াইট হাউসের সাউথ লনে হাঁটার জন্য টিকিট কাটেন। রাতে বৃষ্টি থাকলেও ওই দিন সকালে ঝলমলে রোদ ওঠে। এ বছর ইস্টার মানডের এই অনুষ্ঠানের মূল প্রতিপাদ্য ছিল, ‘চলো আনন্দ করি।’

ফার্স্ট লেডি বলেন, এবারের ইস্টার মানডেতে তিনি পরিবার ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে আনন্দ করতে চান। এটি তাঁদের জন্য একধরনের বৈচিত্র্য। শিশুদের সঙ্গে এই আনন্দ তাঁদের মূল্যবোধকে আরও সুদৃঢ় করবে।

Facebooktwittergoogle_pluspinterestlinkedin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *