দশম শ্রেণীর ছাত্রীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদে বাবাকে মারধর

index
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট।।
গাজীপুরের কালীগঞ্জের নাগরী ইউনিয়নের পাড়াবর্তা গ্রামে স্কুল পড়ুয়া এক ছাত্রীকে বিল্লাল হোসেন টুকু নামে এক লম্পট দীর্ঘ দিন যাবত স্কুলে যাওয়া-আসার সময় পথরোধ করে ওই ছাত্রীকে বিভিন্ন ধরনের কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। পরে বিষয়টি ওই ছাত্রী তার বাবা-মা ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের অবগত করে। পরে স্থানীয় লোকজন বিষয়টি ওই লম্পট বিল্লাল হোসেন টুকুর পরিবারকে জানালে সে ক্ষীপ্ত হয়ে তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে বাড়ী থেকে বের করে দেয়।

৮ মার্চ মঙ্গলবার সকালে ওই স্কুল ছাত্রীর চাচা মো. আশু মিয়া বাদি হয়ে কালীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সুত্রে ও স্থানীয়রা আমাদের গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি মুহাম্মদ আতিকুর রহমান আতিককে জানা যায়, সোমবার বিকালে ছাত্রীর বাবা মো. হোসেন আলী বাড়ী থেকে মোটর সাইকেল নিয়ে তার বড় ভাইয়ের বাড়ি যাওয়ার পথে পাড়াবর্তার নিরব স্থানে আসতেই পূর্বে থেকে ওৎ পেতে থাকা ওই লম্পট ও তার সহযোগী ২/৩ জন বন্ধু মিলে ওই ছাত্রীর বাবার পথ রোধ করে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে। সে তার ন্যায় সঙ্গত প্রতিবাদ করলে ওই লম্পট ও তার সহযোগীরা ক্ষীপ্ত হয়ে দেশীয় অস্ত্র লাঠিসোঠা দিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে মারধর করে হাত-পা ও মেরুদন্ড ভেঙ্গে ফেলে। পরে তার ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন দৌড়ে আসলে সন্ত্রাসী, লম্পটরা হত্যার হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায়।

স্থানীয় লোকজন তাকে গুরুতর রক্ত্যাক্ত জখম অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা আশিয়ান হাসপাতালে ভর্তি করে। মো. হোসেন আলী বর্তমানে ঢাকা আশিয়ান হাসপাতালের ১৬ নং রুমের ২নং বেডে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ।

জানা যায়, সে রূপগঞ্জের ইউসুফগঞ্জ স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণীর ছাত্রী।

Facebooktwittergoogle_pluspinterestlinkedin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *